“মজার ইশকুলের সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা মাতল , বৈশাখের আনন্দে”

১। ” আমাদের শিক্ষার্থীরা এখন আর খাবার নষ্ট করে না, সময় বেশী লাগলেও সবাই তৃপ্তি নিয়েই খায়” , খাওয়া শেষে শ্রেণী শিক্ষকরা প্রায় সবাই একই তথ্য দিচ্ছিল আলোচনায় ।
 
মজার ইশকুল :: Mojar School পহেলা বৈশাখে আয়োজন করেছিল, বৈশাখী মেলার , যেখানে সকল শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও স্বেচ্ছাসেবীরা অংশ গ্রহণ করে । মেলায় ৩ টি স্টলে মজার মজার রঙ্গিন বই, মাটির তৈরি তৈজসপত্র এবং মুড়ি – মুড়কি ছিল । যা সবাই বিনামূল্যে খাওয়ার সুযোগ পেয়েছে ।
 
বিভিন্ন ক্লাসের শিক্ষার্থীরা নিজ আগ্রহে নানান পরিবেশনায় অংশ গ্রহণ করে, যা ছিল দারুণ আনন্দের ।
 
সব শেষে রাশেদুল ইসলাম রাজু ভাইয়ের সহযোগিতায় মজার ইশকুলঃ মানিক নগরের শিক্ষার্থীর #বিরিয়ানি খাওয়ানো হয় ।
 
ছোট্ট নোটঃ কারো মনে হতে পারে প্লেটে খাবার কম দেখাচ্ছে । আমরা সব সময় সকল খাবারের অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের কম কম করে খাবার দেই এবং যে যতক্ষণ চায় নিতে পারে কিন্তু খাবার নষ্ট যাতে কোন ভাবেই না হয় সেদিকে নজর থাকে । প্লেট ভর্তি খাবারের সুন্দর ছবি অপেক্ষা, খাবার নষ্ট না করা আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ ।

 

 

২। শুভ নববর্ষ ১৪২৫ । সবাই নতুন বাংলা বছরের শুভেচ্ছা

Bata Shoe Company BD Ltd ও Bata Children’s Program এর আমন্ত্রণে মজার ইশকুল :: Mojar School পরিবার অংশ গ্রহণ করেছিল বাটার বর্ষ বরণ উৎসবে ।

শিক্ষার্থীদের সাথে কেক কাটেন চিতপান কানহাশিরি, কোম্পানী ম্যানেজার, নাচে – গানে আনন্দের সাথে কেক কাটেন বাটা বাংলাদেশের দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসারগণ । মেজর তাহমিদুর রহমান (অবঃ) সিনিয়র ম্যানেজার- এইচ. আর. এবং বি.সি.পি. করডিনেটর এবং বিসিপি স্বেচ্ছাসেবী মোঃ মাজহারুল ইসলাম, সিনিয়র অফিসার- এইচ. আর. ও উম্মে হান্না, সহকারী ম্যানেজার-এইচ. আরসহ অন্যন্যারা উপস্থিত ছিলেন ।

বৈশাখী দারুণ সব খাবারের পাশাপাশি, বিভিন্ন খেলনা শিক্ষার্থীরা উপহার পায় ।

ধন্যবাদ #বাটা বাংলাদেশকে এতো সুন্দর একটি দিন আমাদের শিক্ষার্থীদের উপহার দেয়ার জন্য ।

Happy new year 1425 | Best wishes to everyone for the Bengali new year.

Mojar School family took part in the new year celebration program of Bata by the invitation of Bata Shoe Company BD Ltd and Bata Children’s Program.

Mr. Chitpan Kanhasiri , Company Manager and the other officers of Bata Bangladesh cut the cake with the students by dancing, singing and with joy. Mr. Major Md. Tahmidur Rahman, (Retd), Sr. Manager- Human Resources & BCP Coordinator, Md. Majharul Islam, Sr. Executive- Human Resource & BCP and Ms. Umme Hanna , Asst. Manager-Human Resources & BCP along with others was also present.

Besides many items of Boishakhi food, the students receive various toys as gift.

Thanks to #Bata Bangladesh for gifting such a beautiful day to our students.

“আমাদের প্রথম চ্যালেঞ্জ কিন্তু ইশকুলে নিয়মিত করা না”

YouTube শিক্ষক হিসেবে কাজ করে মজার ইশকুল :: Mojar School এর জন্য ।
 
এখনো আমরা দুর্দান্ত সব নাচ শিক্ষার্থীদের শিখাতে পারিনি । কেন পারিনি সেই গল্প আগে বলি,
 
আমরা যাদের পড়াই বা পড়তে উৎসাহ দেই তারা কিন্তু সুবিধাবঞ্চিত পথশিশু । বাস্তবতা হচ্ছে, আমাদের ইশকুল ভিজিট করার পর বেশীর ভাগ শুভাকাঙ্ক্ষী ভুলে যায় বা গুলিয়ে ফেলে যে, এই শিশুরা অন্য ১০ টা শিশুর মত না । প্রথমত, এই শিশুরা এতো অনাদরে বেড়ে উঠে যে , আমাদের সমাজের প্রায় কারো প্রতি এদের বিশ্বাস থাকে না বিভিন্ন কারন বসতই । “আমাদের প্রথম চ্যালেঞ্জ কিন্তু ইশকুলে নিয়মিত করা না”, প্রথম চ্যালেঞ্জ তাকে বিশ্বাস করানো ভিতর থেকে যে আমরা তার পাশে বন্ধুর মত আছি । আস্থা তৈরি করা ।
 
এই আস্থা বলে কয়ে কেউ তৈরি করতে পারে না , সময় লাগে । কারো ক্ষেত্রে কম বা কারো ক্ষেত্রে বেশী । এরপর শুরু হয় ইশকুল মুখী করার কাজ, তারপর নিয়মিত হওয়ার, তারপর শিক্ষায় আগ্রহী করা এবং শেষে শিক্ষায় অন্তর্ভুক্ত করা । এই ধাপ গুলো সহজ নয় মোটেই ।
 
যা বলতে গিয়ে এত লেখার অবতারণা, নাচ, গান বা কবিতা আবৃত্তি গুলো ঠিক টিভিতে দেখা বা নাম করা কোন ইশকুলের শিক্ষার্থীদের মত হয় না । হাত তালিও সেভাবে পায় না ।
 
অথচ, আমি – আমরা মুগ্ধ হয়ে দেখি । চোখে অবিশ্বাস নিয়ে দেখি, যে শিক্ষার্থী নাচ, গান বা কবিতা শুরু করে তারা নিজেরাই অবাক হয় । রাস্তায় কাগজ না টুকিয়ে , মাদকের স্পর্শে না থেকে আজকে তারা সবাই মধ্যমণি । ভাইয়া আপুরা ( স্যার , ম্যামরা ) অপেক্ষা করে আছে আমার পরিবেশনা দেখার , এটা ভেবে আনন্দিত হয় । আমরা মুগ্ধ হই অবাক হই, নিজেদের ভালোবাসা ছড়িয়ে দেয়ার ক্ষমতা দেখে নিজেদের চিমটি কাটি ।
 
করুণা নয়, ভালোবেসে পাশে থেকে একটা শিশুর আত্মবিশ্বাস আমরা সবাই মিলে বাড়িয়ে দিচ্ছি ।
 
কেউ কেউ ভুলে যায়, আমরা একদিনের জন্যও ভুলি না । ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার না , একটা শিশুও যেন আর পথে ফিরে না যায় , যেতে বাধ্য না হয় তা নিশ্চিত করতেই আমাদের পথ চলা ।
 
 
অনুরোধ, যখন আমাদের শিশুদের কোন পরিবেশনায় আপনি থাকেন । আমরা জানি এরা কেউ আপ-টু-মার্কস না কিন্তু ওদের চেষ্টায় কোন কমতি না । অপ্রতুল সহযোগিতা বা সুযোগকে এই শিশুরা বাঁধা মনে করে না বরং যা পায় তাতেই আকাশসম আনন্দ তারা উপভোগ করে । আমাদের শুধু ভালোবেসে পাশে থাকার দায়িত্ব ।
 
 
ইউটিউব কিভাবে নাচের শিক্ষক ? ওইখানের ভিডিও দেখে যেটা সব থেকে সহজ সেটাই শিখায় যায় আমাদের শিক্ষকরা , স্বেচ্ছাসেবী শিক্ষকরা !
 
ছবি – স্বাধীনতা দিবসে শিক্ষার্থীদের জীবনে প্রথম দলীয় নৃত্য ।

নতুন বই পাওয়ার আনন্দ

নতুন বই পাওয়ার আনন্দ 

প্রাইমারি লেভেলের সকল শিক্ষার্থীদের বই সরকার থেকেই পাই আমরা, সহপাঠের বই গুলোও একই সাথে পেয়ে থাকে শিক্ষার্থীরা । প্রি-প্রাইমারি শিশু থেকে শুরু হলেও, যেহেতু মজার ইশকুল :: Mojar School সুবিধাবঞ্চিত পথশিশুদের জন্য কাজ করে তাই ছোট বেলা থেকেই দেখে দেখে ভিক্ষা , মাদকের দিকে যাতে আগ্রহী না হয় তাই সাড়ে তিন থেকে ৫ এর আগ পর্যন্ত বয়সী যে সকল শিশু ঝুঁকির ভিতর আছে বলে আমরা মনে করি তাদের #রিসিপশন ক্লাসে ভর্তি নেই । যাতে তারা ইশকুল কি বুঝতে পারে । এবং শিশু শ্রেণীর জন্য প্রস্তুত হয় ।

 

 

“মামার সাথে মজার ইশকুল :: Mojar School – এ”

“মামার সাথে
মজার ইশকুল :: Mojar School – এ”
 
 
গতকাল আগারগাঁও ইশকুল থেকে বের হওয়ার পথে এই দৃশ্য চোখে পরে, মামা তার দুই ভাগ্নিকে সাইকেলে তুলছে । যতো অবহেলা আর না পাওয়ার ভিতর দিয়েই বড় হোক না কেন, প্রতিটা সন্তানকে প্রতিটা পরিবার প্রশ্নের উর্ধ্বে গিয়ে নিঃস্বার্থ ভাবে ভালোবাসে , আগলে রাখে বা রাখতে চায় ।
 
আর্থিক সামর্থ্য নেই , হয়তো কথায় কথায় মারে , তিন বেলা খাবারের নিশ্চয়তা নেই তবুও সন্তান যখন পড়াশোনায় ভালো করে পরিবারের কোন সদস্য যখন হঠাৎ করেই আলাদা কেয়ার নেয় এই শিক্ষার্থীরা তখন অবাক হয় ।
 
মজার ইশকুল :: Mojar School এ একজন শিক্ষার্থী যখন ভর্তি হওয়ার সুযোগ পায়, তখন তখন থেকে ইশকুল তার কাছে অন্যান্য অসাধারণ জায়গা হিসেবে স্থান করে নেয় । এমন আবদার আমরা প্রায় প্রতিদিন-ই শুনি সপ্তাহে সাত দিনই কেন ইশকুল খোলা রাখা যায় না । এটা ভালোলাগা আর ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ তা আমরা বুঝি । বছর ঘুরতে মজার ইশকুল থেকে পাওয়া ভালোবাসার সাথে পরিবারের যে সদস্যের কেয়ারে এই শিশু বড় হচ্ছে তার ভালোবাসা আরও বেশী পেতে শুরু করে ।
 
হঠাৎ করে বদলে যাওয়া জীবনে মজার ইশকুলের অবদান থাকে সব থেকে বেশী, তাই ইশকুলের প্রতি ভালোবাসাও বাড়ে সাথে কিছু আবদারও, যদিও এক্সপ্রেস করতে পারে কমই ।
 
এই যে মজার ইশকুল, দারিদ্র্যতার কারণে তৈরি হওয়া দুরুত্ব খুব সহজেই মার্জ করে ফেলতে পারে এই তথ্য কোন ডাটাবেজ-এ পাওয়া যাবে না কিন্তু আলোকহীন জীবনে আশা আলো হয়ে আশা মজার ইশকুল কিন্তু শিশুদের মনে ঠিক দাগ কেটে যায় ।
 
 
#Mojar_School #Street_Child #Dhaka #Under_Priviliged_Child #Sponsor_A_Child #Komlapur_Open_School #Shahbagh_Open_School #Sadarghat_Open_School
 
#মজার_ইশকুল #পথশিশু #ঢাকা #বাংলাদেশ #সুবিধাবঞ্চিত_শিশু #স্পন্সর_এ_চাইল্ড #শিক্ষা_উন্নয়ন_অভিভাবক #খোলা_আকাশের_নিচে_স্কুল_ইশকুল #কমলাপুর #সদরঘাট #শাহবাগ #আগারগাঁও #মানিকনগর

[ কমলাপুর থেকে মানিক নগর ] সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নির্ভরতা ও ভালোবাসার, “মজার ইশকুল”

মজার ইশকুল যাত্রা শুরু করে জানুয়ারি মাসের ১০ তারিখ, ২০১৩ সালে । সুবিধাবঞ্চিত অন্ধকার পথে হারিয়ে যাওয়া শিশুরা যাতে আলোর দিশা পায় তাই নিরলস ভাবে কাজ করছে মজার ইশকুল।

খুব সাধারণ একটি আইডিয়া কিভাবে একটি প্রজন্মকে বদলে দিতে কাজ করছে তার প্রাথমিক ধারণা পাওয়া যায় এই কমলাপুর রেলওয়ে ষ্টেশন থেকে  নিকটবর্তী মানিক নগর মজার ইশকুল দেখলে

মজার ইশকুল
জাতীয় সংগীত ও শপথ পাঠের প্রস্তুতি নিচ্ছে কমলমতি শিক্ষার্থীরা / মার্চ ২০১৮  / যখন শিক্ষার্থী ২৪০ জন , মোট ক্লাসরুম ৮ টি ।

কিন্তু শুরুটা নিশ্চয়-ই এমন ছিল না । ২০১৩ সালে মজার ইশকুল প্রথম যাত্রা শুরু করে শাহবাগে । আর এরপর যখন আরও বেশী শিশুদের কাছে আসার সিদ্ধান্ত হয় তখন আমরা কমলাপুর রেলওয়ে ষ্টেশনকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেই ।

 

এমন খোলা আকাশের নিচেই পরিচালিত হয় মজার ইশকুল কমলাপুর / মার্চ ২০১৮ / প্রতিদিন যেখানে শিক্ষার্থী কমছে যা অর্জন করা আমাদের চূড়ান্ত লক্ষ্য

শুরুর গল্প বলার পুর্বে ২০১৭ সালে মানিক নগর মজার ইশকুলে যে শিক্ষার্থী ছিল তাদের কথা শেয়ার করা জরুরী, সংখ্যায় ৬০ জন । আনুষ্ঠানিক ভাবে ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ সালে ক্লাস শুরু হয় । মজার বিষয় হচ্ছে, মজার ইশকুল কমলাপুরও ২০১৪ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি যাত্রা শুরু করেছিল অর্থাৎ দুই ইশকুলের জন্মদিন একই ।

৬০ জন শিক্ষার্থীর শরীর চর্চার দৃশ্য / এপ্রিল ২০১৭

স্বপ্ন যাদের পথশিশু মুক্ত বাংলাদেশ: মজার ইশকুল আনন্দ উৎসব

আনন্দ উল্লাসের সাথে আয়োজিত হলো মজার ইশকুল আনন্দ উৎসব। ঢাকা ইস্কাটন লেডিস ক্লাবে গত ১৯ অক্টোবর ৪ শতাধিক শিশুর সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে তারা। তাদেরকে দুপুরের খাবার দেয়া হয়। মজার ইশকুলের শিশুরা নাচ, গান ও আবৃত্তির মাধ্যমে আনন্দে মাতিয়ে রাখে সবাইকে। থাকে সিসিমপুরের হালুম টুকটুকিরাও।

‘মজার ইশকুলের’ ওই আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন যাত্রাবাড়ী-ডেমরা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার ইফতেখাইরুল ইসলাম।

 

বিস্তারিতঃ https://goo.gl/vAh67P

 

 

#Mojar_School #Street_Child #মজার_ইশকুল #পথশিশু #ঢাকা #বাংলাদেশ

এটাই #মজার_ইশকুলের_ম্যাজিক / শুভ সকাল

১,২,৩….৬ সারি শিক্ষার্থী সকাল ৮ টার আগেই। আমরা অভিভূত টিমের কাজ দেখে। এতো সুন্দর লাইন, নিয়মিত উপস্থিতি আশাব্যঞ্জক।

৫ বছর আগে মাত্র ১৩ জন নিয়ে মজার ইশকুল :: Mojar School যাত্রা শুরু করেছিল আজ তা বেড়ে স্থায়ী ২ ইশকুলে ৩১১ এবং ৩ ওপেন ইশকুলে ৫০০+ জন।

যে শিশুদের আমরা খুঁজে, বুঝিয়ে নিয়ে আসতাম পড়াতে তারাই আজকে সবার আগে প্রতিদিন ইশকুলে আসে।

মাত্র ৩ টি বছর পর ক্লাস ফাইভ, তাদের পিএসসি শেষ করবে আর আমাদের ১০ বছর পূর্তিতে আমরা হাতে কলমে দেখাতে সমর্থ হবো, পরিবর্তন কিভাবে আসে। শুধু একজন শিক্ষার্থী না, পুরো পরিবার কিভাবে পালটে যায় সাথে একটা জেনারেশনের ও।

এখনো দেড়শতাধিক শিক্ষার্থী ‘শিক্ষা উন্নয়ন অভিভাবক” এর বাহিরে। মাসিক মাত্র ১৫০০ দিয়ে একজন শিক্ষার্থীর জীবন বদলে দিতে অবদান রাখুন।

এটাই #মজার_ইশকুলের_ম্যাজিক / শুভ সকাল । বাংলাদেশ 

.
মাসিক মাত্র ১৫০০ টাকা বা বছরে ১৮,০০০ টাকা অথবা #পেপালে মাসিক ২০ ডলার বা বছরে ২৪০ ডলার ।

“শিক্ষা উন্নয়ন অভিভাবক বা Sponsor A Child”এর জন্য https://goo.gl/2hvhRA এই লিঙ্কে গিয়ে আপনার প্রাথমিক ৫ টি তথ্য দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করুন ।

#তারুণ্য #মজার_ইশকুল #পথশিশু #সুবিধাবঞ্চিত

 

মজার ইশকুল :: Mojar School #মেডিক্যাল_ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

মজার ইশকুল :: Mojar School #মেডিক্যাল_ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

গত ২৮ মার্চ ২০১৮ #বিসিপি ( বাটা চিলড্রেন প্রোগ্রাম ) এর আয়োজনে মজার ইশকুল আগারগাঁও-এ মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়, বিশেষজ্ঞ ডাক্তার সকল শ্রেণীর শিক্ষার্থীর প্রয়োজন অনুযায়ী বিনামূল্যে বিভিন্ন ওষুধ প্রদান করেন ।

 

 

মজার ইশকুল :: Mojar School #মেডিক্যাল_ক্যাম্প অনুষ্ঠিত গত ২৮ মার্চ #বিসিপি ( বাটা চিলড্রেন প্রোগ্রাম ) এর আয়োজনে মজার…

Posted by মজার ইশকুল :: Mojar School on Friday, March 30, 2018

মজার ইশকুলে “মহান স্বাধীনতা দিবস ২০১৮” উদযাপিত

২৬ শে মার্চ ২০১৮ । মজার ইশকুল :: Mojar School

যথাযথ ভাব গাম্ভীর্য ও সম্মানের সাথে উদযাপিত হলো মহান স্বাধীনতা দিবস , ইশকুলের শিক্ষার্থীরা ছোট বয়সেই স্পষ্ট ধারণা পেলো স্বাধীনতা ও বিষয় দিবস কি । দেশাত্মবোধক গান, নাচ আর কবিতায় পারফর্ম করে বিভিন্ন ক্লাসের শিক্ষার্থীরা , যা ছিল মনো মুগ্ধকর ।

স্বাধীনতার যুদ্ধের সূত্রপাত, প্রথম অস্রসহ হানাদার বাহিনীকে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে প্রতিরোধের বীর সাহসী গল্প শোনার “ডেমরা জোনের এসি ইফতেখায়রুল ইসলাম স্যার” , সরাসরি একজন উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার কাছ থেকে ঘটনা প্রবাহ শিশুরা দ্রুত ধরতে পারে । অঙ্কুরেই মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের গুরুত্ব ও দেশ প্রেমে আলোড়িত হওয়ার সুযোগ পায় এই সকল শিক্ষার্থীরা ।

 

প্রতিটা সকাল সম্ভাবনার । মজার ইশকুল মানিক নগর

মজার ইশকুল :: Mojar School টিম প্রতিদিন এই ভেবে ঘুমাতে যায় যে, আর মাত্র ৩/৪ টি বছর লেগে থাকলেই মশাল হাতে “আলো পড়াতে” বেড়িয়ে আসবে একেকটি আলোক শিখা ।

সবাই জানে ম্যাচের কাঠির এক টোকায় জ্বলে উঠে মশাল, শুধু মজার ইশকুলের প্রতিটা মেম্বার জানবে এক টোকায় না, ৭/৮ বছর লেগে থেকে তবেই জ্বেলেছিল আলোক মশাল ।

যারা আলো ছাড়াবে , তাদের চিৎকার ক্যামেরা বন্দি করে প্রস্তুতি নিচ্ছি আমরা । প্রতিটা সকাল সম্ভাবনার ।